কাঞ্চনে আ’লীগ-যুবলীগের দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, ফাঁকা গুলি, আহত-১০

0
932

ডেস্ক রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কের দুই পাশে বালু ভরাটের কাজকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের দু’গ্রুপের মাঝে ধারালো অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে কয়েক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

 

এসময় ফাঁকা গুলি বর্ষণের ঘটনাও ঘটে। সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। যে কোন সময় আবারো সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। মঙ্গলবার (২৯ জুন) দুপুরে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার মায়ারবাড়ী এলাকায় ঘটে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়ক প্রসস্থ্যকরণ কাজ চলছে। সড়কের উভয় দিকে বালু ভরাট করে প্রসস্থ্যকরণ করতে হবে। আর এ বালু ভরাট করতে হবে শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ড্রেজারের পাইপ লাইন স্থাপন করে। আর ড্রেজার পাইপের মাধ্যমে বালু ভরাট কাজ দাবি করেন কাঞ্চন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক গোলাম রসুল কলি ও তার লোকজন।

 

অপর দিকে, একই কাজ দাবি করেন কাঞ্চন পৌর যুবলীগ নেতা সফিকুল ইসলাম। মঙ্গলবার সকাল থেকে এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কে বালু ভরাট কাজ করার লক্ষ্যে কাজ ড্রেজারের পাইপ লাইন স্থাপন করছিলেন যুবলীগ নেতা সফিকুল ইসলামসহ তার লোকজন। দুপুরে গোলাম রসুল কলির সমর্থক ইসলাম উদ্দিনসহ তার লোকজন এতে বাঁধা দিয়ে বলেন পাইপ লাইনটি স্থাপন করে বালু ভরাটের কাজটি করবেন তারা। এ নিয়ে উভয় গ্রুপের লোকজনের মাঝে তর্কবিতর্ক ও বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে তারা রামদা, চাপাতিসহ ধারালো অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় জড়িয়ে পড়েন।

 

কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণও করা হয়। এসময় পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে উভয় গ্রুপের লোকজন রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে স্বপন, সাজিদ, রায়হান, শরীফ, জোবায়ের, হানিফ ও নাফিজকে স্থানীয় ইউএসবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

এ বিষয়ে কাঞ্চন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক গোলাম রসুল কলি বলেন, বাইপাস সড়কে বালু ভরাটের কাজটি আমরা পেয়েছি। জোরপুর্বক পাইপ বসানোর সময় বাঁধা দিতে গেলে আমার লোকজনের উপর সফিকের নেতৃত্বে হামলা চালানো হয়।

 

পাল্টা অভিযোগ করে যুবলীগ নেতা সফিকুল ইসলাম সফিক বলেন, বালু ভরাটের কাজটি পেয়ে পাইপ লাইন স্থাপন করতে গেলে গোলাম রসুল কলির লোকজন হামলার ঘটনা ঘটায়।
এ বিষয়ে ভোলাব তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মাহাবুবুর রহমান বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here