পাটমন্ত্রী গাজীর এলাকায় কে হচ্ছেন কাউন্সিলর : ৩ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

0
305

ডেস্ক রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার তারাবো পৌরসভা নির্বাচনের ৪ নম্বর ওয়ার্ডটি পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী ও নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজীর এলাকায় অবস্থিত।

এ কারণে ৪ নং ওয়ার্ডের গুরুত্ব অন্যান্য ওয়ার্ড থেকে একটু বেশি। কে হবেন এ ওয়ার্ডের কাউন্সিল এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে জল্পনা কল্পনার শেষ নেই।

এ ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে তিনজন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

মনোনয়নপত্র সংগ্রহের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা নির্বাচন অফিসার ও রির্টানিং অফিসার মোহাম্মদ মতিয়ুর রহমান।

মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন যারা, রূপসী এলাকার আক্তার হোসেন, বাঘবাড়ি এলাকার নজরুল ইসলাম মফিজ ও ইকবাল হোসেন প্রধান।

এদিকে, শিল্পাঞ্চল এলাকায় অবস্থিত তারাব পৌরসভাটি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন একটি পৌরসভা। পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতিক) এর নির্বাচিত এলাকা হওয়ায় তারাব পৌরসভা নির্বাচনের দিকে চেয়ে আছে সারাদেশবাসী। তবে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পুরো পৌর এলাকা জমে উঠেছে।

এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি সমর্থকসহ মোট সাত জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এদের মধ্যে আওয়ামীলীগ সমর্থিত দুই জন, বিএনপি সমর্থিত দুই জন, অন্যান্য তিন জন।

মনোনয়ন সংগ্রহ করলেন যারা, আওয়ামীলীগ সমর্থিত বর্তমান তারাব পৌরসভার মেয়র, পাট ও বস্ত্রমন্ত্রীর সহধর্মিনী এবং উপজেলা আওয়ামী মহিলালীগের সভানেত্রী হাসিনা গাজী, সাবেক মেয়র মাহাবুবুর রহমান খাঁনের ছেলে আওয়ামীলীগ সমর্থিত কে,এম মাহামুদ হাসান সিয়াম, বিএনপি সমর্থিত নাসির উদ্দিন, বিএনপি সমর্থিত হাফিজুর রহমান ভুইয়া, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী, হাবিবুর রহমান হাবিব ও হাতপাখা সমর্থিত আবু সাঈদ।

মোহাম্মদ মতিয়ুর রহমান বলেন, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে সকল প্রকার প্রস্তুতি গ্রহন করেছে নির্বাচন কমিশন। এখানে আচরন বিধিলঙ্গন করলে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ভোটের পরিবেশ সুন্দর করতে আমরা সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করবো।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্র জানায়, তারাব পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ২০ ডিসেম্বর রোববার, রির্টানিং অফিসার কর্তৃক মনোনয়নপত্র বাছাই ২২ ডিসেম্বর মঙ্গলবার, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ২৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার, প্রতিব বরাদ্দ ৩০ ডিসেম্বর বুধবার ও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৬ জানুয়ারী শনিবার। এখানে মোট সাধারন ওয়ার্ড সংখ্যা ৯টি, সংরক্ষিত ওয়ার্ড সংখ্যা ৩টি। মোট ভোট কেন্দ্র ৪৩টি, মোট ভোট কক্ষের সংখ্যা ২৮২টি। এছাড়া মোট ভোটার সংখ্যা ৮৫ হাজার ২৬৯, এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ৪৪ হাজার ১৫১ ও মহিলা ভোটার সংখ্যা ৪১ হাজার ১১৮টি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here