মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪ ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সরকারের পদত্যাগ দাবিতে মানুষ ফুঁসে উঠেছে: রিজভী
প্রকাশ: রবিবার, ১৬ জুলাই ২০২৩, ০৫:১১ অপরাহ্ণ

বর্তমান সরকারের পদত্যাগের দাবিতে পুরো দেশের মানুষ ফুঁসে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, এই ফ্যাসিবাদী সরকারের বিরুদ্ধে আজ শিক্ষকরা জেগে উঠেছেন, শ্রমিকরা জেগে উঠেছেন, ছাত্ররা জেগে উঠেছেন। গোটা দেশের মানুষ ফুঁসে উঠেছে এই সরকারের পদত্যাগের জন্য (দাবিতে)। এই অবস্থার অবসান ঘটাতেই হবে।

রোববার (১৬ জুলাই) দুপুরে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি উপলক্ষে রাজধানীর বেইলি রোডে লিফলেট বিতরণকালে এসব কথা বলেন তিনি।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, শেখ হাসিনার পদত্যাগ এবং নির্বাচনকালীন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে এক দফা আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ে। এর জন্য আজ গোটা জাতি একেবারে ঐক্যবদ্ধ, কোনোভাবেই এর বাইরে জাতির কোনো মুক্তি হবে না যদি শেখ হাসিনা টিকে থাকেন। সুতরাং এখন দাবি একটাই, শেখ হাসিনার পতন এবং নির্বাচনকালীন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার, যার অধীনে একমাত্র অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া সম্ভব। আওয়ামী লীগের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়া সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, কয়েক মাস পর নির্বাচন। এ সময় দেশের জনপদের পর জনপদ, এলাকার পর এলাকায় তারা বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর আক্রমণ করছে। এই ভয়াবহ সন্ত্রাসী পরিকাঠামোর মধ্যে তারা একটি ভয়াল নির্বাচন করতে চায়। যেখানে ভোটাররা যাবে না, সাধারণ মানুষ যাবে না, ভোট দিতে তারা ভয় পাবে। একটা ভয়ের সংস্কৃতি তারা চালু করতে চায়।

বিএনপির এই মুখপাত্র অভিযোগ করে বলেন, একটা সামান্য বক্তব্যের কারণে রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদকে প্রতিদিন জেলা শহরের কোনো না কোনো আদালতে হাজির করা হচ্ছে, রিমান্ডে নির্যাতন করা হচ্ছে। আজও যখন মাগুরাতে তার নামে মিথ্যা মামলায় হাজিরা দিতে গেছেন, সেখানে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা আবু সাঈদ চাঁদের এবং তার আইনজীবীর ওপর নানাভাবে আক্রমণ করেছে। এই হানাহানি রক্তপাতের সরকারের অধীনে কখনোই সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়।

রিজভী বলেন, এফবিসিসিআইয়ের মতো ব্যবসায়ীদের সংগঠন আজ আওয়ামী লীগের সুরে, ওবায়দুল কাদেরের সুরে, হাছান মাহমুদের সুরে বক্তব্য রাখছে। আজ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যাদের নিরপেক্ষ দায়িত্ব পালন করার কথা তাদের দলদাসে পরিণত করেছে এই সরকার। কোনো প্রতিষ্ঠানেই গণতন্ত্র নেই, নির্বাচন নেই বলেই আজ এফবিসিসিআইয়ের মতো একটি সংগঠনের নেতারাও সরকারের দলদাসে পরিণত হয়েছে।

তিনি বলেন, আগামী ১৮ এবং ১৯ জুলাই বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি এই সরকারের পদত্যাগ এবং নির্বাচনকালীন সরকারের দাবিতে। এই দাবিতে আমাদের অবিরাম পদযাত্রা চলবে ঢাকার এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত পর্যন্ত।

লিফলেট বিতরণকালে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন রোাকন, কৃষকদলের যুগ্ম-সম্পাদক কৃষিবিদ মেহেদী হাসান পলাশ, সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা শাহজাহান মিয়া সম্রাট, যুবদলের সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক মেহবুব মাসুম শান্ত, ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি ওমর ফারুক কাওসার, ঢাবি ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদুর রহমান মাসুদ প্রমুখ।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ