রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মেয়েকে নিয়ে আলাদা থাকছেন ঐশ্বরিয়া
প্রকাশ: শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৬:৪২ অপরাহ্ণ

সংসার জীবনের এই পর্যায়ে এসে কোথাও একটা সমস্যা তৈরি হয়েছে অভিষেক-ঐশ্বরিয়া দম্পতির। এর সূত্র ধরে তাদের সম্পর্কের টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়েছে। ফলে তাদের বাড়ির অন্দর ছাপিয়ে বিচ্ছেদের গুঞ্জন শিরোনাম হচ্ছে পত্রিকার পাতায়।

বলিউডের আলোচিত তারকা দম্পতি অভিষেক-ঐশ্বরিয়ার সম্পর্ক নিয়ে কল্পনা-জল্পনা আরও প্রবল আকার ধারণ করছে। বলিউডের একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, অভিষেকের সঙ্গে আর একছাদের তলায় থাকছেন না ঐশ্বরিয়া। এই মুহূর্তে বাপের বাড়িতেই উঠেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, শাশুড়ি জয়া বচ্চনের সঙ্গে কয়েক বছর ধরেই তার কথা নেই বলেও শোনা যাচ্ছে।

সম্প্রতি মুম্বাইয়ে নিজের বাংলো ‘প্রতীক্ষা’ মেয়ে শ্বেতা বচ্চনের নামে লিখে দেন অমিতাভ বচ্চন। তারপরই জানা যায়, ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে শ্বেতার সম্পর্কও তেমন মধুর নয়। সাংসারিক এ টানাপোড়েনের প্রভাব পড়েছে অভিষেক এবং ঐশ্বর্যার সম্পর্কেও।বিবাহবিচ্ছেদের দিকে এখনই না এগোলেও, দুজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছে না।

সেই আবহেই শুক্রবার এ জল্পনায় হাওয়া দিয়েছেন তারকা-দম্পতির এক ঘনিষ্ঠজন। নাম-পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, মেয়ে আরাধ্যার কথা ভেবেই এখন পর্যন্ত আইনি বিচ্ছেদের দিকে এগোননি ঐশ্বরিয়া এবং অভিষেক। কিন্তু বেশ কয়েক বছর ধরেই তাদের সম্পর্ক টালমাটাল। পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে গিয়েছে বলেও শোনা যাচ্ছে।

বচ্চনদের বাড়ি ছেড়ে আগেই বেরিয়ে গিয়েছেন ঐশ্বরিয়া। মা বৃন্দা এবং মেয়ে আরাধ্যার সঙ্গে এখন আলাদা থাকেন তিনি। বচ্চন পরিবারের বাকিদের সঙ্গেও তার কোনো যোগাযোগ নেই বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের দাবি, জয়া এবং ঐশ্বরিয়ার মধ্যে একেবারেই বনিবনা ছিল না। গত কয়েক বছর ধরে দুজনের মধ্যে কথা বন্ধ। এক ছাদের নিচে মাঝেমধ্যে যদিও বা এসে পড়েন, পরস্পরকে এড়িয়ে চলেন তারা। একদিকে, স্ত্রী-কন্যা, অন্যদিকে, মা-বাবা-দিদি, এর মধ্যে পড়ে অভিষেক কার্যতই দিশেহারা হয়ে পড়েছেন বলে শোনা যাচ্ছে।

তবে এখনো আইনি বিচ্ছেদের কথা কেউ ভাবছেন না, কেউই চাইছেন না বিষয়টি নিয়ে জলঘোলা হোক। তবে দূরত্ব বজায় রয়েছে পরস্পরের মধ্যে।এ নিয়ে বচ্চন পরিবারের পক্ষ থেকে কারো প্রতিক্রিয়া এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। স্বেতার ছেলে অভিনীত ‘দ্য আর্চিজ’ সিনেমার প্রিমিয়ারেও পুরো পরিবারকে দেখা গেছে। কিন্তু সেখানেও কথাবার্তা এবং আলাপচারিতায় পরস্পরের মধ্যে দূরত্ব ছিল চোখে পড়ার মতো।

পরস্পরের দিকে তাকাননি শ্বেতা এবং ঐশ্বরিয়া। ঐশ্বরিয়া জন্মদিনেও বচ্চন পরিবারের কাউকে দেখা যায়নি। সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিষেক একলাইনে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন, যা দায়সারা বলে মনে হয়েছিল অনেকেরই। তারপর থেকেই তাদের সম্পর্ক নিয়ে জল্পনা শুরু হয়।

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ