রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ফুসফুসে ইনফেকশনের লক্ষণ গুলো কি কি
প্রকাশ: বুধবার, ২৮ জুন ২০২৩, ০৩:১৭ অপরাহ্ণ

বায় দূষণ ও ধূমপানের কারণে ফুসফুস প্রতিনিয়ত ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। ধূমপায়ীর পাশাপাশি পরোক্ষ ধূমপানের কারণেও ছোট-বড় অনেকেরই ফুসফুসে সমস্যা দেখা দিচ্ছে। যদিও প্রাকৃতিকভাবেই ফুসফুস সেসব ক্ষতি কিছুটা হলেও কাটিয়ে নেয়।

তবুও দীর্ঘদিন ধরে ধূমপান ও বায়ুদূষণের কারণে ফুসফুস তার কার্যক্ষমতা হারিয়ে ফেলে ও প্রদাহ বা সংক্রমণ শুরু হয়। চলুন জেনে নেওয়া যাক ফুসফুসে সংক্রমণের লক্ষণসমূহ সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

শ্বাসকষ্ট
ফুসফুসের সমস্যা হলে প্রথমে যে লক্ষণটি প্রকাশ পায় তা হলো শ্বাসকষ্ট। সিওপিডি, হাঁপানি ও ফুসফুস ক্যানসারসহ বিভিন্ন রোগের প্রথম লক্ষণ হিসেবে দেখা দিতে পারে শ্বাসকষ্ট। তাই শ্বাসকষ্ট হলে তা এড়িয়ে যাবেন না।

শুকনো কাশি
নিয়মিত শুকনো কাশি ফুসফুসের রোগের একটি লক্ষণ। যদি ৮ সপ্তাহ টানা কাশি থাকে তাহলে বুঝতে হবে আপনার ফুসফুসের কার্যক্ষমতা কমেছে। প্রাথমিক এ লক্ষণ আপনাকে ইঙ্গিত দেয়, শ্বাসযন্ত্রের ব্যবস্থায় ত্রুটি ঘটলেই একটানা কাশি হয়।

অল্পতেই হাঁপিয়ে ওঠা
শ্বাসকষ্ট কখনো সাধারণ সমস্যা হতে পারে না। অনেকে ভেবে থাকেন শারীরিক কসরতের কারণে শ্বাসকষ্ট হতে পারে! ধারণাটি ভুল। ফুসফুসে সমস্যা থাকলে আপনি অল্পতেই হাঁপিয়ে উঠতে পারেন। এটিও একটি সতর্কতা লক্ষণ।

শ্লেষ্মা বা কফ ওঠা
বায়ুপথ যখন সংকুচিত হয়ে আসে তখন শ্লেষ্মা উৎপাদন বেড়ে যায়। যদি আপনার শ্লেষ্মা উৎপাদন এক মাস বা তারও বেশি সময় ধরে চলমান থাকে তাহলে এটি ফুসফুসের রোগকে ইঙ্গিত করে।

শ্বাস নেওয়ার সময় শব্দ
শ্বাস নেওয়ার সময় যদি বুকের মধ্যে শব্দ করে তাহলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ফুসফুসের রোগ হলে এ ধরনের লক্ষণ দেখা দেয়। এর কারণ হলো আপনার ফুসফুসের বায়ুপথ একেবারেই সংকুচিত হয়ে এসেছে।

কাশির সঙ্গে রক্ত
কাশির সঙ্গে রক্ত পড়ার কারণটিও ফুসফুসের ইনফেকশনের লক্ষণ হতে পারে। উপরের শ্বাসনালি থেকে রক্ত উঠে থাকে এক্ষেত্রে। এমনটি হলে দ্রুত চিকিৎসকের শরনাপন্ন হতে হবে।

বুকে ব্যথা
দীর্ঘস্থায়ী বুকে ব্যথা অনুভব করলে অনেকে গ্যাস্ট্রিক বলে উড়িয়ে দেয়। বিষয়টি কিন্তু মারাত্মক রোগের লক্ষণ হতে পারে।

এক মাস বা তার বেশি সময় অবধি বুকে ব্যথা স্থায়ী হলে চিন্তার বিষয়। ফুসফুসে রোগ বাসা বাঁধলে শ্বাস নেওয়া বা কাশির সময় বুকে জোরে ব্যথা লাগতে পারে। এটিও একটি সতর্কতা।

এসব লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। ফুসফুসের স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে জানতে পারবেন, শরীরের গুরুত্বপূর্ণ এই অঙ্গ কাজ করবে কি না।

যদি ফুসফুসের কোনো রোগে আপনি ভুগেও থাকেন, প্রাথমিক পরীক্ষার পর দ্রুত সেরে উঠতে পারবেন। পাশাপাশি ফুসফুসের যত্নে পুষ্টিকর খাবার ও শরীরচর্চা করা উচিত।

সূত্র: আমেরিকান লাং অ্যাসোসিয়েশন

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ