শনিবার ১৮ মে ২০২৪ ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রিগোজিনের প্লেনে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছিল, বলছে রুশ মিডিয়া
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট ২০২৩, ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ

রাশিয়ার ভাড়াটে সেনাবাহিনী ওয়াগনার গ্রুপের প্রধান ইয়েভগিনি প্রিগোজিন প্লেন বিধ্বস্ত হয়ে মারা গেছেন। বুধবার (২৩ আগস্ট) আকস্মিক এই খবর আসে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এমব্রায়ের (ইএমবিআর৩.এসএ) লিগাসে এক্সিকিউটিভ জেট প্লেনে করে মস্কো থেকে সেন্ট পিটার্সবার্গে যাচ্ছিলেন প্রিগোজিনসহ মোট ১০ আরোহী। রয়টার্স আরও জানিয়েছে, রাডারের তথ্য থেকে জানা গেছে, প্লেনটি বিধ্বস্ত হওয়ার ৩০ সেকেন্ড আগেও এতে কোনো ধরনের সমস্যা ছিল না। হঠাৎ করেই প্লেনটি খাড়াখাড়িভাবে মাটিতে আছড়ে পড়ে।

রাশিয়ার বিমান চলাচল সংস্থা রোসাভিয়াৎসিয়া দুর্ঘটনার পরপরই জানায়, বিধ্বস্ত বিমানে ওয়াগনার প্রধান ইয়েভগিনি প্রিগোজিন ছিলেন। মস্কো থেকে সেন্ট পিটার্সবার্গ যাওয়ার সময় মস্কোর তাভের অঞ্চলের কুজেনকিনো গ্রামে প্লেনটি বিধ্বস্ত হয় বলে জানায় রাশিয়ার জরুরি পরিস্থিতি মন্ত্রণালয়।

প্লেনটি হঠাৎ করেই মাটিতে আছড়ে পড়ার ব্যাপারে ফ্লাইটরাডার২৪ এর ইয়ান পেটচিনিক বলেছেন, “গ্রিনিচ মান সময় দুপুর ৩টা ১৯ মিনিটে প্লেনটি বিধ্বস্তের ৩০ সেকেন্ড আগে ‘হঠাৎ খাড়াখাড়িভাবে’ নিচু হয়ে যায়। এটি ২৮ হাজার ফুট উচ্চতা থেকে ৮ হাজার ফুট খাড়াভাবে নামে। যা হয়েছে, খুব দ্রুত হয়েছে।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘প্লেনটিতে কি হয়েছে এখন এ নিয়ে হয়ত তাদের মধ্যে বিতর্ক চলছে। কিন্তু হঠাৎ করে পড়ে যাওয়ার আগে, প্লেনটিতে কোনো ধরনের গোলযোগের আলামত ছিল না।’

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, প্লেনটির খুব দ্রুত গতিতে নিচে নেমে আসছে এবং এটির নাকটি প্রায় সোজা বরাবর নিচের দিকে ছিল। এছাড়া প্লেনটির পেছনের দিকে ধোঁয়ার কুণ্ডলি দেখা যাচ্ছিল।

দুর্ঘটনার কারণ জানতে ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে। তবে পরিচয় গোপন রাখার শর্তে কিছু সূত্র রাশিয়ার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, তাদের বিশ্বাস প্লেনটি এক বা একাধিক সারফেস টু এয়ার ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ভূপাতিত করা হয়েছে। তবে রয়টার্স এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করতে পারেনি।

ব্রাজিলিয়ান প্লেন উৎপাদনকারী এমব্রায়ার জানিয়েছে, যে প্লেনটি বিধ্বস্ত হয়েছে সেটিতে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তারা কোনো সার্ভিস করেনি। প্লেনটিতে একসঙ্গে ১৩ জন ভ্রমণ করতে পারতেন।

সূত্র: রয়টার্স

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ