মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪ ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নেপালে নিষিদ্ধ হিন্দি সিনেমা
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০২৩, ০৬:২৫ অপরাহ্ণ

প্রভাস অভিনীত ‘আদিপুরুষ’ সিনেমা ১৬ জুন মুক্তি পেয়েছে। প্রথমদিন থেকেই বিভিন্ন ধরনের সমালোচনার মুখে পড়েছে সিনেমাটি। ‘আদিপুরুষ’ সিনেমার কিছু সংলাপ নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

এ আবহে এরই মধ্যে নেপালের রাজধানী কাঠমাণ্ডুতে ‘আদিপুরুষ’সহ সব হিন্দি সিনেমা নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এবার সে পথেই হাঁটল নেপালের অন্যতম পর্যটন শহর পোখারা।

বিতর্কের মুখে ‘আদিপুরুষ’। সিনেমাতে সীতাকে ‘ভারতের কন্যা’ বলাসহ একাধিক সংলাপের বিরোধিতা করে নেপালের কাঠমান্ডু ও পোখারায় নিষিদ্ধ করা হয়েছে এ সিনেমা। শুধু এ সিনেমাই নয়, সব ধরনের হিন্দি সিনেমা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কাঠমান্ডু ১৭টি প্রেক্ষাগৃহে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে যাতে সেখানে কোনো হিন্দি ছবি না দেখানো হয়, তা নিশ্চিত করতে।

কাঠমান্ডু মেয়র বলেন্দ্র শাহ রবিবার জানিয়ে দেন কাঠমান্ডু মেট্রোপলিটন শহরে কোনো হিন্দি সিনেমা দেখানো হবে না যতক্ষণ না ‘আদিপুরুষ’ সিনেমা সংলাপ থেকে ‘জানকী ভারতের কন্যা’ অংশ সরানো হচ্ছে। এ সংলাপ অপসারণ শুধু নেপালের জন্যই নয়, সরাতে হবে ভারতেও, দাবি বলেন্দ্র শাহের। কারণ অনেক মত অনুযায়ী, সীতা অর্থাৎ জানকী, দক্ষিণ-পূর্ব নেপালে অবস্থিত জনকপুরে জন্মেছিলেন।

খুব দ্রুত এ রাস্তা অনুসরণ করে পোখারা। পোখারা মেট্রোপলিশ মেয়র ধনরাজ আচার্য জানান, সোমবার থেকেই ‘আদিপুরুষ’ সিনেমার স্ক্রিনিং বন্ধ করে দেওয়া হবে। কাঠমান্ডু মেয়রের দাবি, ওই সংলাপের অংশ বাদ না দিয়ে এ সিনেমা প্রদর্শন ‘অপূরণীয় ক্ষতি’র সৃষ্টি করবে।

রবিবার একটি ফেসবুক পোস্টে তিনি বলেন, ‘আদিপুরুষ’ সিনেমার সংলাপে আপত্তিকর অংশগুলো এখনো সরানো হয়নি, ফলে সোমবার ১৯ জুন থেকে কাঠমাণ্ডু মেট্রোপলিটন সিটিতে সমস্ত হিন্দি চলচ্চিত্রের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এরই মধ্যে তিন দিন আগেই সংলাপের আপত্তিকর অংশ যেখানে বলা হচ্ছে ‘সীতা ভারতের সন্তান’ তা অপসারণের জন্য নোটিশ দিয়েছি।’ তার পোস্টের পর নেপালের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের বেশিরভাগই এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।

বিতর্ক যখন তুঙ্গে, সেই আবহে অবশ্য ‘আদিপুরুষ’ সিনেমার সংলাপ রচয়িতা মনোজ মুনতাশির শুক্লা, রবিবার জানিয়েছেন যে নির্মাতারা সিনেমার কিছু ‘সংলাপ সংশোধন’ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এর পক্ষে তিনি লম্বা বিবৃতিও দেন।

এ অবস্থায় কাঠমান্ডু মেট্রোপলিটন সিটির পুলিশ প্রধান জানিয়েছেন যে, সমস্ত প্রেক্ষাগৃহে নজরদারি চলছে। বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে যেমন শুধু নেপালি ও ইংরেজি সিনেমা দেখানো হচ্ছে, হিন্দি সিনেমা নয়। পরবর্তী অনুমতি ছাড়া হিন্দি সিনেমা দেখানো হচ্ছে না বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত এই বিতর্কের আবহে ‘আদিপুরুষ’ সিনেমা সংলাপ রচয়িতা মনোজ মুনতাশিরকে নিরাপত্তা দিল মুম্বাই পুলিশ।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ