সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪ ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাবানল মোকাবিলায় ছাগল নামাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১২:০৬ অপরাহ্ণ

দাবানল মোকাবিলায় ব্যতিক্রমী একটি পথ খুঁজে পেয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া কর্তৃপক্ষ। দাবানল ছড়িয়ে পড়ার বড় কারণ যে ঝোপঝাড়, সেগুলো পরিষ্কার করতে ছাগলের পাল কাজে লাগাচ্ছে মার্কিন অঙ্গরাজ্যটি।

সারাক্ষণ পেটভরা ক্ষিদে নিয়ে ঘোরা একপাল ছাগল একদিনে প্রায় এক একর জমি সাফ করে দিতে পারে। তাই দাবানল ছড়িয়ে পড়া কমাতে দারুণ কার্যকর ও পরিবেশবান্ধব উপায় এটি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে ভয়াবহতম দাবানলের ঘটনাগুলো ঘটেছে ক্যালিফোর্নিয়ায়। ১৯৮০ সালের পর থেকে সেগুলো আরও নিয়মিত, ধ্বংসাত্মক ও বৃহত্তর হয়ে উঠেছে।

এ প্রসঙ্গে ছাগল পালনকারী মাইকেল চোই বলেন, আমরা সব জায়গা থেকে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি। আমি যতদূর বলতে পারি, এটি সবার জন্যই জয়।

ছাগল পালন ও সেগুলো লিজ দেওয়া চোই’র পারিবারিক ব্যবসা। তার পালে প্রায় ৭০০ ছাগল রয়েছে। সেগুলো দমকল বিভাগ, স্কুলসহ বিভিন্ন গ্রাহকের কাছে ভাড়া দেওয়া হয়। তিনি জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক সময়ে চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় ছাগলের সংখ্যা বাড়াতে হয়েছে তাকে।

চোই বলেন, আমি মনে করি, এই ধারণা এবং পরিবেশগত প্রভাব সম্পর্কে মানুষ আরও সচেতন হলে তারা আগাছা পরিষ্কার ও ভূমিকে আগুন থেকে রক্ষার জন্য কোন পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে, সে সম্পর্কে আরও সচেতন হয়ে উঠবে। সুতরাং, অবশ্যই (ছাগলের) একটি বড় চাহিদা রয়েছে এবং তা ক্রমেই বাড়ছে।

এই কাজে অতিরিক্ত কোনো পরিশ্রমের দরকার নেই। ছাগলদের কেবল পানি দিলেই চলে। তারা ঘাসযুক্ত সমতল ভূমি কিংবা খাড়া ঢাল, যেকোনো জায়গায় চরতে পারে। ছাগলগুলোকে পাহারা দেওয়ার জন্য একটি প্রশিক্ষিত কুকুর ব্যবহার করেন মাইকেল চোই।

তিনি বলেন, দমকল বিভাগের যতটা দরকার (মাটি থেকে প্রায় তিন ইঞ্চি পর্যন্ত), ছাগলগুলো প্রায় ততটাই খায়। আর এই প্রক্রিয়ার মধ্যে তারা তাদের মলমূত্র ও খুর দিয়ে মাটির উপকারও করে।

২০২১ সালে ‘অভূতপূর্ব’ দাবানলের মুখোমুখি হয়েছিল ক্যালিফোর্নিয়া। গত বছর তা কিছুটা ‘হালকা’ ছিল এবং এ বছরের আগস্ট মাস ছিল গড়ের তুলনায় শীতল ও আর্দ্র। এরপরও সেখানকার বিশাল বনভূমি দাবানলে পুড়ে গেছে এবং তাতে অন্তত চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ