শনিবার ১৮ মে ২০২৪ ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওয়াগনারকে সন্ত্রাসী বাহিনী ঘোষণা করছে যুক্তরাজ্য
প্রকাশ: বুধবার, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৪:০৬ অপরাহ্ণ

ইয়েভজেনি প্রিগোজিনের ওয়াগনার গ্রুপকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য। যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে এ বিষয়ে একটি খসড়া আদেশ পেশ করা হবে।

এই আদেশ পাস হলেই দিয়ে যুক্তরাজ্যে ওয়াগনারের সদস্য হওয়া বা সমর্থন করা অবৈধ বলে বিবেচনা করা হবে। খবর বিবিসি।
যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব সুয়েলা ব্রাভারম্যান বলেন, ওয়াগনার ভ্লাদিমির পুতিনের রাশিয়ার একটি সামরিক হাতিয়ার, এটি হিংস্র এবং ধ্বংসাত্মক। ইউক্রেন এবং আফ্রিকায় ওয়াগনারের কর্মকাণ্ড বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি, তারা সন্ত্রাসী এবং যুক্তরাজ্যের এই নিষেধাজ্ঞার আদেশটির মাধ্যমে আইনেও তা স্পষ্ট করা হবে।

চেচনিয়ায় যুদ্ধ করা একজন রুশ সেনা কর্মকর্তা দিমিত্রি উটকিন এই বাহিনী প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তবে পরবর্তিতে এর প্রধান হন রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী ইয়েভগেনি প্রিগোজিন। যাকে পুতিনের রাঁধুনি বলা হয়। কারণ, এক সময় তিনি ক্রেমলিনের জন্য খাবার সরবরাহ করতেন।

ক্রিমিয়া দখলের জন্য রাশিয়া ২০১৪ সালে ওয়াগনার গ্রুপের যোদ্ধারা প্রথম ভূমিকা পালন করে। এ সময় দলটির বিরুদ্ধে ইউক্রেনের নাগরিকদের হত্যা ও নির্যাতনসহ একাধিক অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। এরপর ২০১৫ সালে সিরিয়াতে সরকার সমর্থক বাহিনীর পাশাপাশি থেকে যুদ্ধ করে ওয়াগনার বাহিনী। ওই সময় তারা তেলের খনিগুলোও পাহারা দিত।

তাছাড়া ওয়াগনার বাহিনী ভাড়াটি সৈন্যরা লিবিয়ায় জেনারেল খলিফা হাফতারের সহযোগী হিসেবে কাজ করেছে। আর মধ্য-আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে হীরার খনি পাহারা দিতে কাজ করে।

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালির সরকার ইসলামি জঙ্গি গ্রুপগুলোর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ওয়াগনার বাহিনীকে কাজে লাগাচ্ছে। সুদানে সোনার খনি পাহারা দেওয়ার কাজ করছে ওয়াগনার বাহিনীর যোদ্ধারা।

সুদান ও মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে তাদের কর্মকাণ্ডের কারণে ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্র তাদের ওপর বেশ কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল। বাহিনীটি লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির চারপাশে ল্যান্ডমাইন স্থাপন করেছিল বলে ২০২০ সালে জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

গত জুন মাসে প্রিগোজিন রাশিয়ার সামরিক নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যর্থ বিদ্রোহের নেতৃত্ব দেওয়ার পর ক্রেমলিনের সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েন শুরু হয় । এরই মধ্যে গত ২৩ আগস্ট সন্দেহজনক বিমান দুর্ঘটনায় মারা যান প্রিগোজিন।

নিষেধাজ্ঞার আদেশটি পাস হলে এই ভাড়াটে বাহিনীর নাম যুক্তরাজ্যে অন্যান্য নিষিদ্ধ সংগঠন যেমন হামাস ও বোকো হারামের সাথে যুক্ত করা হবে।

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ