রূপগঞ্জে স্বতন্ত্রপ্রার্থীর সমর্থকদের বাড়িঘরে ফের হামলা ভাংচুর

0
716

ডেস্ক রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিদ্বন্ধি চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের নির্বাচনী ক্যাম্প ও বাড়িঘরে ফের হামলা চালিয়ে ব্যপক ভাংচুর চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় হামলকারীদের মধ্যে দুই জনকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ভোলাব ইউনিয়নের বাসন্দা ও পাইস্কা এলাকায় ঘটে এ ঘটনা।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ভোলাব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী (নৌকা) অ্যাড. তায়েবুর রহমান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন টিটু (আনারস)। রাত ১২টার দিকে চেয়ারম্যান প্রার্থী আলমগীর হোসেন টিটুর পাইস্কা নির্বাচনী ক্যাম্পে অ্যাড. তায়েবুর রহমানের সমর্থক আজিজ, আনোয়ার, জুলহাস, ছনেট, পলাশ, সোহেলসহ ৩০ থেকে ৪০ জনের একদল ধারালো অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফের হামলা চালিয়ে চেয়ারটেবিল ভাংচুর করে। পরে হামলাকারীরা আলমগীর হোসেন টিটুর সমর্থক আব্দুল গফুর, দেলোয়ার হোসেন জন্টু, লোকমান ও শামিম কাজীর বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর চালায় এবং প্রাণনাশের হুমকি দেন। এক পর্যায়ে আলমগীর হোসেন টিটুর সমর্থকরা উত্তেজিত হয়ে হামলাকারীদের মধ্যে জুলহাস ও বারেক নামের দুই জনকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আমির খসরু ও সহকারী পুলিশ সুপার (গ সার্কেল) আবির হোসেনের নেতৃত্বে আইনশৃংলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন।

এ বিষয়ে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী (নৌকা) অ্যাড. তায়েবুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি উল্টো অভিযোগ করে বলেন, আমার সমর্থকদের কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে আলমগীর হোসেন টিটুর সমর্থকরা। এছাড়া তারা নিজেরা নিজেদের বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুর চালিয়ে নাটক সাজিয়েছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন টিটু বলেন, প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থীসহ প্রার্থীর সমর্থকরা আমার সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। আমি তাৎক্ষনিক বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আমির খসরু বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পরবর্তীতে এ ধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে সে ব্যপারে প্রশাসনের সজাগ দৃষ্টি রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here