তারাবতে বিয়ের প্রলোভনে যুবতীকে ধর্ষণের পর অন্তঃসত্বা, গ্রেফতার-১

0
53

নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক যুবক ১৯ বছর বয়সী এক যুবতীকে এক বৎসর ধরে ধর্ষণ করে অন্তসত্বা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে ঐ ধর্ষিতা যুবতী বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ধর্ষনের স্বীকার ঐ যুবতী জানান, দেড় বছর ধরে উপজেলার তারাবো হাটিপাড়া এলাকার কামাল হাজীর ভাড়াটিয়া বাড়ীতে মাকে নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন তারা। উপজেলার তারাবো হাটিপাড়া এলাকার মোহাম্মদ আলী ওরফে মাউক্কার ছেলে রাব্বি মিয়ার সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায় রাব্বি মিয়া তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার সঙ্গে শারিরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। দীর্ঘ এক বছর ধরে শারিরিক সম্পর্কের ফলে তিনি ছয় মাসের অন্তঃসত্বা হন । পরে অন্তসত্বার কথা জানিয়ে বিয়ে করার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে রাব্বি মিয়া ওই যুবতীকে বিয়ে না করার জন্য বিভিন্ন টালবাহানা শুরু করে। একপর্যায়ে রাব্বি মিয়া তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।
পরে ওই যুবতী তার মাকে বিস্তারিত বিষয় জানায় পরে তার মাতা রাব্বি মিয়ার পিতা মাতা ও এলাকার অন্যান্য আত্মীয় স্বজনদের ঘটনার বিস্তারিত জানায়। পরে গত ১৫ আগষ্ট সন্ধা ৭টার দিকে মোহাম্মদ আলী ওরফে মাউক্কা, রফিকুল, নবীর হোসেন, সালাউদ্দিন ওরফে সালু, বেকারী মিঠু, মিজানসহ অজ্ঞাতা ৫/৭ জন তারাবো হাটিপাড়া এলাকার বদরুজ্জামান বদুর বসতবাড়ীতে এ বিষয়টি নিয়ে একটি ঘরোয়া বিচার শালিসে বসে। পরে বিচার শালিসের নামে বিবাদীরা ধর্ষিতা ও তার মাকে মিথ্যা অপবাদ ও ভয়ভীতি দেখিয়ে গ্রামের বাড়ীতে তাড়িয়ে দিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চালায়। পরে ওই যুবতী রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় ধর্ষকের বাবা মোহাম্মদ আলী ওরফে মাউক্কাকে গ্রেফতার করেছে। তদন্ত মোতাবেক বাকী আসামীদের গ্রেফতার করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here