ভুলতায় বাড়ছে অপরাধ : পুলিশ ফাঁড়ির ৫’শ গজের মধ্যে ৪ জন অপহরণ

0
1001

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ি এলাকায় চুরি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ অপরাধমুলক কর্মকান্ড বৃদ্ধি পেয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত দুই সপ্তাহে ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ির ৫’শ গজের মধ্যেই অপরণ, ছিনতাইসহ ঘটছে নানা অপরাধ।

ভুলতা ফাঁড়ি পুলিশের তেমন কোন অভিযান বা তৎপরতা না থাকায় দিনের পর দিন অপরাধ প্রবণতা বাড়তে শুরু করেছে। এসব ঘটনাকে কেন্দ্র করে জনমনে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে, ভুলতা, পাঁচাইখা, ভায়েলা, মাঝিপাড়া, গোলাকান্দাইল, আমলাবো, শিংলাবো, মিয়াবাড়ি, সাওঘাট, ডহরগাঁও, আধুরিয়া, মাহনাসহ বেশ কয়েকটি এলাকা নিয়ন্ত্রণ করে ভুলতা ফাঁড়ি পুলিশ। আর ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ হিসেবে নাজিম উদ্দিন মজুমদার যোগদানের পর থেকেই অপরাধ প্রবণতা বেড়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অপরাধ দমনে ভুলতা ফাঁড়ি পুলিশের তেমন কোন পদক্ষেপ না থাকার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি করেন স্থানীয়রা। গত ১৫ দিনে কর্ণগোপ এলাকায় অবস্থিত হাসেম ফুড লিমিটেড কোম্পানিতে নিয়োজিত চার কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ভুলতা পুলিশ ফাড়ির ৫’শ গজ সামনে হাজী আব্দুল আজিজ মার্কেটের সামনে থেকে অপহরণের পর টাকা ও মোবাইল সেট লুটে নিয়ে মুক্তি দিয়েছে অপহরণকারীরা। গত ১৩ এপ্রিল সন্ধ্যায় কারখানা থেকে বের হয়ে ভুলতার দিকে আসার পথে বগুড়া জেলার কাহাল থানার বগভাদাহার এলাকার আব্দুল কাদেরের ছেলে ও সহকারী অপারেটর রাসেল মিয়াকে চোখ-মুখ বেঁধে অপহরণ করে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। পরে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে তাকে ছুড়িকাঘাত করে ৬ হাজার টাকা ও মোবাইল সেট লুটে নিয়ে মুক্তি দেয়। একই দিন একই কায়দায় একই পদে চাকুরিরত মনজুরুল ইসলামের আরো এক জনের কাছ থেকে দশ হাজার চারশত টাকা লুটে নিয়ে মুক্তি দেয়।

 

গত ১৭ এপ্রিল সন্ধ্যায় চট্রগ্রাম জেলার আনোয়ারা থানার রাজালিয়া গ্রামের বাহার উদ্দিনের ছেলে ও হাসেম ফুড লিমিটেড কোম্পানির প্রোডাক্টশন কর্মকর্তা সোহেল উদ্দিনকে অপহরণ করে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। পরে একই কায়দায় অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে নগদ ৬ হাজার টাকা ও মোবাইল সেট লুটে নিয়ে ৫ ঘন্টা পর মুক্তি দেয়। ১৯ এপ্রিল রাতে একই স্থানে রংপুর জেলার পীরগঞ্জ থানার কাবিলপুর গ্রামের আব্দুল ওহাবের ছেলে ওই কারখানার একই পদে হাসানুজ্জামান সাগর অপহরণের শিকার হন। অপহরণকারীরা তাকেও অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে নগদ ৭ হাজার টাকা ও মোবাইল সেট লুটে নিয়ে ৩ ঘন্টা পর মুক্তি দেয়। এসব ঘটনার সত্যতা শিকার করে হাসেম ফুড লিমিটেড কোম্পানির সিভিল ইঞ্জিনিয়ার সালাউদ্দিন বলেন, কোম্পানির পক্ষ থেকে এসব ঘটনার বিষয়ে রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া গত ১৩ এপ্রিল এশিয়ান হাইয়ে সড়কের গোলাকান্দাইল এলাকায় ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন অ্যাম্বুলেন্স চালক ফারুক আহাম্মেদ ফয়সাল। ছিনতাইকারীরা ছুড়িকাঘাত করে ও এলোপাথারি ভাবে মারপিট করে সঙ্গে থাকা নগদ ১৮ হাজার টাকা, মোবাইল সেট, স্বর্ণের চেইনসহ মুল্যবান কাগজপত্র লুটে নেয়।

 

গত ২৩ এপ্রিল রাতে এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের দক্ষিণপাড়া ব্রীজ এলাকায় এসিআই কোম্পানির কভারভ্যান চালক হাসান মিয়া ডাকাতদের কবলে পড়েন। এসময় চালক হাসান মিয়াকে ছুড়িকাঘাত করে ১৮ হাজার টাকা ও ২টি মোবাইল সেট লুটে নেয়। গত ২১ এপ্রিল ভোরে এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের নীলভিটা এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাসে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতদল বাস চালক হারেজ ও হেলপার হযরত আলীকে অস্ত্রেরমুখে জিম্মি করে সঙ্গে থাকা ৩৬ হাজার টাকা ও মোবাইল সেট লুটে নেয়। প্রতিবাদ করায় তাদের দু’জনকে হাতুড়ি পেটা করে। এসময় বাসের যাত্রীরা ডাকাত ডাকাত বলে চিৎকার শুরু করলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। এ ধরনের ঘটনার শেষ নেই। এছাড়া ইদানিং এসব এলাকা গুলোতে বিভিন্ন ধরনের মাদকের ছড়াছড়ি বেড়ে গেছে। ভুলতা ফাঁড়ি পুলিশের তেমন কোন তৎপরতা না থাকায় এসব মাদকের ছড়াছড়ি বাড়ছে বলে স্থানীয়রা মনে করেন।
আইনশৃখংখা নিয়ন্ত্রণে আনতে ও অপরাধ দমনে জেলা পুলিশ সুপারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

 

এ বিষয়ে ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নাজিম উদ্দিন মজুমদরা বলেন, কিছু কিছু ঘটনার অভিযোগ পেয়ে ব্যবস্থা নিয়েছি। আবার অনেক ঘটনার বিষয়ে আমরা জানিনা। অভিযোগ পেলে সব গুলো ঘটনার বিষয়ে ব্যবস্থা নেবো।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here