ড্রেজার ব্যবসাকে কেন্দ্র করে যুবক খুন

0
376

ডেস্ক রিপোর্ট : বন্দরের মদনপুরে ড্রেজার ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দির্ঘদিনের চলমান বিরোধে জুয়েল (২৬) নামে এক যুবক খুন হয়েছে। গত বুধবার (৭ এপ্রিল) রাত আনুমানিক সাড়ে ৯টায় সাহেরা গার্ডেনের পাশে প্রতিপক্ষরা ঐ যুবককে গুলি করে এবং কুপিয়ে হত্যা করে বলে অভিযোগ নিহতের পরিবারের। ঘটনার পর থেকে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ অবস্থান নেয়। এর আগে ঘটনার রাতেই আহত অবস্থায় জুয়েলকে উদ্ধার করে স্বজনরা স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়।

নিহত যুবক স্থানীয় মোঃ আনোয়ার হোসেনের ছোট ছেলে। গত দুই মাস আগে প্রবাস থেকে ছুটিতে দেশে এসেছিল বলে জানায় নিহতের পরিবার। অন্যদিকে অভিযুক্তরা কাঁচপুরের লিটন খান নামে এক ব্যক্তির সাথে ড্রেজারের ব্যবসা করছে বলে জানান নিহতের পরিবার।

নিহতের বড় ভাই সোহেল বলেন, অভিযুক্তরা শফিকুল ইসলাম খাঁন (লিটন)’র সাথে ড্রেজারের ব্যবসা করে আসছে। সন্ত্রাসীরা আমার ভাইকে হত্যা করে কাঁচপুর এলাকার ড্রেজার সন্ত্রাসী শফিকুল ইসলাম খাঁন (লিটন)’র কাছে গিয়ে আস্ত্রয় নেয়। লিটন যদি এ এলাকায় ড্রেজার না দিত তা হলে আমার ভাই মারা যেত না। আমার ভাইয়ের খুনিদের সাথে লিটনের সক্ষতা রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, বিগত দুই মাস যাবৎ শাহজালাল, আলীম ও ইলিয়াছের সাথে ড্রেজারের ব্যবসা নিয়ে দ্বন্দ চলছিল। বিভিন্ন সময় নানা হুমকিও প্রদান করেছে তারা। তাছাড়া চলমান এই বিরোধ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে বসে মিমাংশাও করা হয়েছিল। কিন্তু পরিকল্পিতভাবে অভিযুক্তরা তার ছোট ভাই ও তার উপর ঘটনার রাতে হামলা করে। আশেপাশের লোকজনের সহযোগিতায় আমি বেঁচে গেলেও আমার ছোট ভাই সোহেলকে তারা পেটে গুলি করে এবং বা হাত কুপিয়ে কেটে ফেলে। এতে আমার ভাইয়ের মৃত্যু হয়। আমরা প্রশাসনের উর্ব্ধতন কর্তৃপক্ষের এর উপযুক্ত বিচার চাই।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করে। দুপুরে অভিযুক্তদের বাড়িতে আগুন জ¦ালিয়ে দেয়া হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এসে আগুন নেভায়। বিকেলে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন ছিল। ##

বিঃ দ্রঃ এ বিষয়ে বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জকে ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here