গবাদি পশুর সঙ্গে এ কেমন শত্রুতা প্রতিবেশীর!

0
96

ডেস্ক রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মেয়েকে যৌন হয়রানী করার বিচার হিসেবে গ্রাম্য শালিসে শাস্তি দেয়ার জেরে বখাটে প্রতিবেশির অত্যাচারের শিকার হয়েছে এক নিরীহ পরিবার।

শুধু তাই নয়, প্রতিশোধ নিতে রাতের আঁধারে গোয়াল ঘরে আগুন দিয়ে গো বাছুর ও ছাগল পুড়িয়ে মেরে ফেলার রয়েছে অভিযোগ।

 

ঘটনাটি ঘটেছে ১৫ মার্চ সোমবার মধ্যরাতে উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের কুলিয়াদি গ্রামে।

ভুক্তভোগী সামিউল জানান, তিনি উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের কুলিয়াদি এলাকার বাসিন্দা। গত এক মাস আগে তার মেয়ে সাদিয়া (২২) তার স্বামীর বাড়িতে থেকে বাবা সামিউলের বাড়িতে বেড়াতে যান। এসময় প্রতিবেশী সহিদ ফকিরের ছেলে শাহ আলম (৩০) সাদিয়াকে বিভিন্ন ইভটিজিং করেন। সাদিয়া ঘটনাটি তার পরিবারকে বিষয়টি জানালে তারা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের জানান।

 

এসময় গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে অভিযুক্ত শাহ আলমকে ডেকে শাস্তি দিয়ে দিয়ে উভয় পরিবারকে শান্তি বজায় রাখতে মিলিয়ে দেয়। তবে গ্রাম্য শালিসে শাস্তি দেওয়ায় শাহ-আলম বিভিন্ন সময় সামিউল ও তার পরিবারকে হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিল।

 

এর জেরেই গত সোমবার মধ্যরাতে সামিউলের গোয়াল ঘরে আগুন দিয়ে ১টি গো বাছুর ও ১টি ছাগল পুড়িয়ে মারে। এছাড়া এসময় সামিউলের বাড়ির পানির কল, বাহিরের বৈদ্যুতিক বাতি চুরি, হাস মুরগী মেরে ফেলার ঘটনাও ঘটায়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে সামিউল বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দেন।

তবে অভিযুক্ত শাহ আলম বলেন, প্রতিবেশী সামিউলদের অভিযোগ সঠিক নয়। তাদের পশু মারার সঙ্গে আমার কোনসম্পৃক্ততা নেই।

 

ভোলাব তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সানোয়ার হোসেন বলেন, এমন ঘটনায় তদন্ত চলছে। অভিযুক্ত জড়িত হলে তাকে আইনের আঁওতায় আনা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here