মুড়াপাড়ায় সুতা ও বিস্কুট তৈরীর কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, আহত ১

0
106

নিউজ ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সিম গ্রুপ নামে সুতা ও বিস্কুট উৎপাদনকারী একটি কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার ( ২৬ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার মুড়াপাড়া ইউনিয়নের ঠাকুর বাড়িরটেক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শনিবার সকাল ৭ টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের ১০ ইউনিট চেষ্টার পর আগুন নেভাতে সক্ষম হয়।

এ সময় ওই কারখানায় কর্মরত মো. মোস্তাফিজুর রহমান (২৭) নামে এক ফায়ারম্যান আগুন নেভাতে গেলে তার ডান হাত পুড়ে যায়। এ ঘটনায় ওই কারখানার মেডিকেল টিম তার হাতে ৫ টি সিলি দিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয় বলে জানা গেছে।

এদিকে খবর পেয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে কাজ করেছে কাঞ্চন, আড়াইহাজার ও মাধবী ও আদমজী ফায়ার সার্ভিসের ১০ ইউনিট। পরবর্তীতে সাহায্যের জন্য ঢাকার ডেমরা ফায়ার সার্ভিসের দু’টি টিমসহ ফায়ার সার্ভিসের মোট ৮ টি টিম পর্যায়ক্রমে ঘটনাস্থলে কাজ করেছেন। দীর্ঘ ৩ ঘন্টা চেষ্টার পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও আগুন নির্বাবনে দীর্ঘ সময় লাগবে বলে জানান ফায়ার সার্ভিস টিম।
এ বিষয়ে ডেমরা ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. ওসমান গনি বলেন, ওই কারখানার তুলা ও সুতার গোডাওনে আগুন লেগেছে। আর ওই গোডাওনের মধ্যে পানি পৌছানো কঠিন ছিল বলে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। কারণ গোডাউনের ইমারজেন্সি ডোর নেই, নেই ভেন্টিলেশন সিস্টেম। তাছাড়া কাছাকাছি পানির রিজার্ভার না থাকায় আগুন নিয়ন্ত্রণে সময় লেগেছে বেশি। এদিকে আগুন নির্বাপন করতে হলে গোডাউনের সমস্ত তুলা ও সুতা বের করতে হবে প্রথমে। তবে প্রাথমিকভাবে আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে জানা যায়নি। আর ক্ষয়ক্ষতির পরিমান তদন্ত সাপেক্ষে জানা যাবে।

শ্রমিক ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৮ টার দিকে সিম গ্রুপের কারখানার তুলা ও সুতার গোডাউনে হঠাৎ করে আগুন ধরে যায়। আগুনের লেলিহান শিখা দ্রুত চারদিকে ছড়িয়ে যেতে থাকলে শ্রমিকরা চিৎকার করে বাইরে বেরিয়ে যায়। এ সময় শ্রমিকরা পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। কারখানাটির মালিক জামালপুর-৫ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোজাফফর হোসেন ইঞ্জিনিয়ার বলে জানা গেছে।

কাঞ্চন ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শাহ-আলম বলেন, প্রথমে কাঞ্চন, আড়াইহাজার ও মাধবী, ডেমরা ও আদমজী ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছে। পরবর্তীতে ডেমরা ফায়ার সার্ভিসের দু’টি টিমসহ মোট ১০ টি টিম অঅগুন নিয়ন্ত্রণ ও নির্বাপনে কাজ শুরু করে। আর ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে কারখানার ফায়ার কর্মীরাও আগুন নিয়ন্ত্রের চেষ্টা চালিয়েছে। শনিবার সকাল ৭ টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আগুন নেভাতে সক্ষম হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here