তারাব নির্বাচনে মনোনয়ন বিক্রির অভিযোগে নাসিরের বহিস্কার চেয়ে ফকরুলের কাছে চিঠি

0
314

ডেস্ক রিপোর্টঃ নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তারাবো পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজিফুর রহমান ভুঁইয়া। রূপগঞ্জের তারাবো পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হাছিনা গাজীর সঙ্গে আতাত করে দলীয় মনোনয়ন বাতিল করেছেন নাসির উদ্দিন। এমন অভিযোগ তুলে গত ৭ জানুয়ারি এই লিখিত অভিযোগ করেছেন হাফিজুর রহমান ভুঁইয়া।

লিখিত অভিযোগে হাজিফুর রহমান ভুঁইয়া নিজেকে তারাবো পৌর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দাবি করেছেন। তিনি অভিযোগ করেছেন, ‌’গত ১৪ ডিসেম্বর পৌরসভার দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে আমি তারাবো পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করি। একই সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের না রেখে গোপনে মেয়র পদে মনোনয়ন পত্র সঙগ্রহ করে নাসির উদ্দিন। ১৮ ডিসেম্বর নাসির উদ্দীনকে মেয়র পদে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন, তখন আমি আপনাকে বলেছিলাম নাসির উদ্দিন মেয়র প্রার্থীতা বিক্রি করে দিবে, সেদিন আপনি কিছু বলেননি।’

আরও অভিযোগ করা হয়- আমাদের কথাটাই সত্য হলো। কারন নাসির উদ্দিন তার নির্বাচনে দিলবরকে সমর্থনকারী বানিয়ে মনোনয়ন দাখিল করেছে, যে দিলবর মন্ত্রী গাজীর অফিসের কর্মচারী। যে যোগসাজসিকভাবে মোটা অংকের অর্থ নিয়ে দলের সাথে বেঈমানী করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছে। তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হোক।

এদিকে গত ১১ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে জেলা বিএনপির প্রথম মানববন্ধনে তারাবো বিএনপির নেতাকর্মীরা নাসির উদ্দিনকে মারধরের চেষ্টা করেছিলেন। এ নিয়ে বিএনরি দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের মাঝে তুমুল হাতাহাতি ধস্তাধস্তি ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছিল।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে তারাবো পৌরসভার নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী নাসির উদ্দীন আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী হাসিনা গাজীর কাছে মনোনয়ন বিক্রি করে দিয়েছে বলে এমন অভিযোগ তুলে নাসিরউদ্দীনকে মারধরের চেষ্টা করেছেন তারাবো পৌর বিএনপির নেতাকর্মীরা।

তারাবো পৌরসভা নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের মনোনয়ন পান জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক নাসির উদ্দীন। তিনি ওই নির্বাচনে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের সমর্থনকারীকে নিজের সমর্থনকারী হিসেবে দেখিয়ে নির্বাচন কমিশন বরাবর মনোনয়ন দাখিল করেন।

একই সমর্থনকারী দুই মেয়র প্রার্থীর হওয়ায় নাসির উদ্দীনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়। এই ঘটনার পর বিএনপির নেতাকর্মীরা অভিযোগ তুলেছেন, নাসির উদ্দীন গোপনে সরকারি দলের প্রার্থীর সঙ্গে আতাত করে ধানের শীষ মনোনয়ন বিক্রি করে কৌশলে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। ওই অভিযোগ তুলেই সোমবার জেলা বিএনপির মানববন্ধনে নাসির উদ্দীনের উপর চড়াও হয় বিএনপির নেতাকর্মীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here